পাহাড়ে পানির ঢল কমতে শুরু হওয়ায় নীলফামারীতে বসত ভিটা পানিতে তলিয়ে যাচ্ছে

রংপুর ক্রাইম নিউজ
পাহাড়ে পানির ঢল কমতে শুরু হওয়ায় তিস্তার পানি ক্রমশ কমতেছে ।
শুক্রবার (৭ জুলাই) তিস্তার পানি ডালিয়া পয়েন্টে বিপদসীমার ৮ সেন্টিমিটার ওপরে প্রবাহিত হলেও তা দুপুর ১২টার পর পানি বিপদসীমার ৬ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হয়। 

বিকেল ৩টায় ১২ সেন্টিমিটার ও বিকেল ৬টায় আরও ৩৫ সেন্টিমিটার কমে এখন পানি বিপদসীমার ২৫ সেন্টিমিটার নিচে প্রবাহিত হচ্ছে। উজানের পাহাড়ের ঢল সামাল দিতে খুলে রাখা হয়েছে তিস্তা ব্যারাজের ৪৪টি জলকপাট।

বৃহস্পতিবার (৫ জুলাই) নীলফামারীর ডিমলা ও জলঢাকা উপজেলার প্রায় ২০টি গ্রামে হাঁটু থেকে কোমর পানিতে তলিয়ে যেতে থাকে । তবে শুক্রবার দুপুরের পর তা স্বাভাবিক হতে শুরু করে। প্রবল ভাঙনের কারণে ঝুনাগাছ চাপানি ইউনিয়নের ছাতুনাম নতুন করে ৬টি ও ভেন্ডাবাড়ী মৌজায় আরও ২টি বাড়ি ভাঙনের কারণে তা সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। গত দুই দিনে ঝুনাগাছ চাপানি ইউনিয়নের ১৫টি বসতবাড়ী ও পূর্ব ছাতনাই ইউনিয়নের ৬টিসহ ২১টি বসতবাড়ী বাঁধে আশ্রয় নিয়েছে।
ডালিয়া পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম চৌধুরী জানান, উজানের ঢলের কারণে তিস্তার পানি ডালিয়া পয়েন্টে বাড়লেও শুক্রবার সকাল ৬টা থেকে পানি কমতে শুরু করে এখন তা বিপদসীমার ২৫ সেন্টিমিটার নিচে প্রবাহিত হচ্ছে।

সম্পর্কিত সংবাদ