মিঠাপুকুরে স্বামীকে হত্যা করে আত্মহত্যার ঘটনা সাজিয়ে অতঃপর

মিঠাপুকুরে স্বামীকে হত্যা করে আত্মহত্যার ঘটনা সাজিয়ে অতঃপর

মে ২, ২০১৯ 0 By আরসিএন২৪বিডি.কম

আরসিএন২৪বিডি ডেস্ক :
রংপুর: রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলায় এরশাদ মিয়া (৩২) নামে ঝুলন্ত অবস্থায় মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তবে হত্যা করে ঘটনা ধামাচাপা দিতে আত্মহত্যা বলে চালিয়ে দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে । তাই উক্ত ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তার স্ত্রীকে আটক করেছে পুলিশ।

বৃহস্পতিবার (২ মে) সকালের দিকে ঝুলন্ত অবস্থায় এরশাদের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

নিহত এরশাদ উপজেলার ৮ নং চেংমারী ইউনিয়নের মোসলেম বাজারের বড়বাড়ি গ্রামের মৃত ধিয়ান উদ্দিনের ছেলে। তিনি দিনমজুরির কাজ করতো বলে জানা যায়।

মিঠাপুকুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাফর আলী বিশ্বাস রংপুর ক্রাইম নিউজকে
তথ্য নিশ্চিত করেছেন ।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে পাওয়া, এরশাদ মিয়া দিনমজুরের কাজ করতো আবার ঢাকায় পোশাক কারখানায় কাজ করতেন। এরশাদ ১১ বছর আগে ছড়ান বালুয়া এলাকার আছেমা বেগমের সঙ্গে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন। বিয়ের পর থেকে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বনিবনা হতো না। এরশাদের পাঁচ বছরের মেয়ে তার বাবার সঙ্গে থাকলেও তার স্ত্রী ভাইয়ের বাড়িতে থাকতেন।
বুধবার (০১ মে) রাতে নিহত এরশাদের স্ত্রী তার বাড়িতে আসে । পরে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে তাদের মধ্যে ঝগড়া হয়। পরে বৃহস্পতিবার সকালে স্ত্রীর কান্নার শব্দে পেয়ে প্রতিবেশীরা নিহত এরশাদের বাড়িতে এসে ঝুলন্ত অবস্থায় তার মরদেহ দেখতে পায়। পরে এ খবর পেয়ে মিঠাপুকুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. ইদ্রিস আলী সেখানে গিয়ে মরদেহ উদ্ধার করেন।

তিনি মরদেহের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরিতে তদন্ত করে জানা গেছে অন্ডকোষ চেপে ধরার কারণে এরশাদের মৃত্যু হয়েছে বলে জানান। তবে তার শরীরে কোনো ধরনের আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি।

এদিকে এরশাদের পাঁচ বছরের মেয়ে সাদিয়া পুলিশকে জানায়, আরও দু’জন লোকের সহযোগিতায় আমার মা বাবার মৃত্যুর ঘটনাটি ধামাচাপা দেওয়ার জন্য গলায় ফাঁসা লাগিয়ে ঝুলিয়ে রাখেন।

এ বিষয়ে ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) সদস্য ইদ্রিস আলী জানান, একমাস আগে এরশাদ তার স্ত্রী আছেমা বাড়িতে নেই বলে অভিযোগ করেন। তাকে থানায় একটি জিডি করতে বলা হলে তিনি জিডি করেন। আমি তাদের পরিবারের সঙ্গে কথা বলে স্ত্রীকে নিয়ে আসা যায় কিনা সে বিষয়ে তাকে আশ্বস্ত করেছিলাম।

বৃহস্পতিবার ঘটনাস্থলে এসে জানতে পারি বুধবার (০১ মে) আছেমা এশাদের বাড়িতে আসেন। পরে তাদের মধ্যে ঝগড়া লাগে ও একপর্যায়ে আছেমা স্বামীর অন্ডকোষ চেপে ধরার কারণে এরশাদের মৃত্যু হয়েছে।

মিঠাপুকুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাফর আলী বিশ্বাস আরসিএন২৪বিডিকে বলেন, নিহত এরশাদের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও প্রতিবেশীদের সঙ্গে কথা বলেছি। খুব শিগগিরই ঘটনার রহস্য উন্মোচন করতে পারবো।

এরশাদের স্ত্রী আছেমাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছে বলেও জানান পুলিশের ওই কর্মকর্তা ।

আরসিএন২৪বিডি সময় , ১৬৩০ ঘন্টা ০২ মে ২০১৯,বৃহস্পতিবার