ডাকসু সদ্য  ভিপি নুরুল হক সহ ৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা

ডাকসু সদ্য ভিপি নুরুল হক সহ ৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা

মার্চ ১২, ২০১৯ 0 By আরসিএন২৪বিডি.কম

ঢাকা: রোকেয়া হলের প্রভেস্ট জিনাত হুদাকে
লাঞ্ছিত ও হল ভাঙচুরের অভিযোগে,

ডাকসু নির্বাচনে সদ্য ভিপি হওয়া নুরুল হক নূর,বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক লিটন নন্দীসহ পাচঁ জনের বিরুদ্ধে রাজধানীর শাহবাগ থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

গতকাল সোমবার (১১ মার্চ) রাতে মামলাটি দায়ের করা হয়েছে। দায়ের করা মামলা নং-৯।

শাহবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল হাসান এ বিষয়ে জানান, প্রভেস্টকে লাঞ্ছনা ও ভাঙচুরের অভিযোগে নূরসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এই মামলার অপর তিনজন হলেন- সাধারণ সম্পাদক (জিএস) প্রার্থী ঢাবির জহুরুল হক হল ছাত্রদলের যুগ্ম-আহ্বায়ক খন্দকার আনিসুর রহমান,

জিএস প্রার্থী ছাত্র ফেডারেশনের ঢাবি শাখার সভাপতি উম্মে হাবীবা বেনজীর ও রোকেয়া হল সংসদে স্বতন্ত্র ভিপি প্রার্থী শেখ মৌসুমী।

এছাড়া মামলায় অজ্ঞাতপরিচয় ৩০/৪০ জনকে মামলায় আসামি করা হয়েছে।

সোমবার রাতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ নির্বাচনে সহ-সভাপতি (ভিপি) হিসেবে বাংলাদেশ সাধারণ শিক্ষার্থী অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের নুরুল হক নূরের নাম ঘোষণা করা হয়।

ঘোষিত ফলাফলে নূরুল হক নূর পান ১১ হাজার ৬২ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী সম্মিলিত শিক্ষার্থী সংসদের ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন পেয়েছেন ৯ হাজার ১২৯ ভোট।

মামলার এজাহারে বর্ণিত অভিযোগ অনুযায়ী পুলিশ জানায়, সোমবার সকালে ভোট চলকালে রোকেয়া হলে গিয়ে নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ বানচাল করার চেষ্টা চালান অভিযুক্তরা। তারা গুজব ছড়িয়ে দেন যে, ট্রাঙ্কভর্তি সিল মারা ব্যালট পেপার হলের ভেতরে রয়েছে। এ পর্যায়ে হল প্রভোস্ট ড. জিনাত হুদা শিক্ষার্থীদের আশ্বস্ত করে বলেন, বাস্তবে তেমন কিছুই ঘটেনি, সংরক্ষিত ব্যালট পেপারগুলো সাদা।

কিন্তু অভিযুক্তরা প্রভোস্টের কথা না শুনে তাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করেন।
অন্যদিকে জানা যায় সোমবার সকাল থেকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) এবং হল সংসদের প্রতিনিধি নির্বাচনের ভোট গ্রহণ শুরু হয়। কিন্তু দুপুরে রোকেয়া হলের একটি কক্ষে সিলগালা করা তিনটি ব্যালট বাক্স গোপনভাবে রাখার অভিযোগ পেয়ে নুরুল হক এবং পরিষদের কয়েকজন সদস্য হল প্রভোস্টের কাছে যান।

পরে সেখান থেকে বেরিয়ে আসার পর ছাত্রলীগের নারী কর্মীরা নুরুল হকের ওপর হামলা করেন। এ সময় তাকে মাটিতে ফেলে আঘাত করা হয়।

হামলার পর তাকে উদ্ধার করে গণমাধ্যমের একটি গাড়িতে করে বেসরকারি একটি হাসপাতালে পাঠানো হয়।

এ ঘটনার পর রাতেই লাঞ্ছিত ও ভাঙচুরের অভিযোগে নুরুল হকসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে এ মামলা করেন রোকেয়া হলের প্রভোস্ট জিনাত হুদা।
আরসিএন২৪বিডি/ সময়: ১২৫৮ঘণ্টা, মার্চ ১২, ২০১৯