ডিবি পরিচয়ে বাসচালকে মারধর করে হত্যা করায় দিনাজপুরের পরিবহন ধর্মঘট

ডিবি পরিচয়ে বাসচালকে মারধর করে হত্যা করায় দিনাজপুরের পরিবহন ধর্মঘট

এপ্রিল ২৫, ২০১৯ 0 By আরসিএন২৪বিডি.কম

দিনাজপুরঃ চট্টগ্রামে ডিবি পরিচয়ে দিনাজপুরের বাসচালক জালাল হোসেনকে হত্যার বিচার দাবিতে দিনাজপুরে অনির্দিষ্টকালের জন্য পরিবহন ধর্মঘট শুরু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২৫ এপ্রিল) ভোর ৬টা হতে এই জেলা থেকে কোন দুরপাল্লার বাস ছাড়া হয়নি। অপরদিকে ট্রাক, মাইক্রোবাস, প্রাইভেট কারসহ ইঞ্জিনচালিত সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ রেখেছে ।
দিনাজপুর মোটর পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের ডাকে এই ধর্মঘট চলছে।

দিনাজপুর মোটর পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক ফজলে রাব্বী জানান, চট্টগ্রামের পটিয়া এলাকায় বাসচালক জালাল হোসেনকে হত্যার প্রতিবাদে এই ধর্মঘট।

জালালের হত্যাকারীদের গ্রেফতার না করা পর্যন্ত এই ধর্মঘট চলবে।
এদিকে শহরের মোড়ে মোড়ে অবস্থান নিয়ে শ্রমিকরা বাস-ট্রাক ও অন্যান্য যানবাহন চলাচল করতে দিচ্ছে না।

তবে এখন পর্যন্ত কোনও ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

হঠাৎ করে পরিবহন ধর্মঘটের ফলে বিপাকে পড়েছেন যাত্রীরা।

সোমবার (২২ এপ্রিল) দিবাগত রাত ২টার দিকে চট্টগ্রামের কর্ণফুলি থানার শিকলবাহা এলাকায় ডিবি পুলিশ পরিচয়ে জালালকে তুলে নিয়ে গিয়ে মারধর করা হয়।

এতে বাসচালক জালাল হোসেনের মৃত্যু হয়। তিনি দিনাজপুর সদরের হেলেঞ্চাকুড়ি এলাকার আফজাল হোসেনের ছেলে। নিহত জালাল শ্যামলী পরিবহনের চালক ছিলেন ।
বাসচালকের পরিবার জানায়, ৩০ হাজার পিস ইয়াবা আছে, এই অভিযোগে জালাল হোসেনকে একটি নির্জন স্থানে নিয়ে মারধর করে আহত করে ফেলে রেখে যায় ডিবি পরিচয় দেওয়া কয়েকজন। এ সময় বাসের সহকারী রাফিসহ অন্যরা তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় একটি ক্লিনিকে ও পরে চট্টগ্রামে মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

বুধবার (২৩ এপ্রিল) মরদেহ দিনাজপুরে নিজ বাড়িতে আনা হয়। এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িতদের বিচার দাবি করেছেন পরিবারের সদস্যরা।

নিহতের ছেলে ইমরান হোসেন বলেন, ‘আমরা তিন ভাই। বাবাকে হত্যা করা হয়েছে, মাকে নিয়ে এখন কীভাবে আমাদের দিন যাবে। পরিবার কীভাবে চলবে, আমি নিজেও প্রতিবন্ধী।

বাবার হত্যার বিচার চাই এবং সরকারের পক্ষ থেকে আমাদের পরিবারকে সহযোগিতা করা হোক।’
নিহতের স্ত্রী ইরিনা খাতুন বলেন, ‘ওইদিন সন্ধ্যায় স্বামীর সঙ্গে শেষ কথা হয়েছে। গভীর রাতে ছেলে আমাকে বলে বাবা আর নেই।

আমি বিশ্বাস করতে পারিনি। আমার স্বামীর কোনও দোষ নেই, কোনও অবৈধ কাজ করতো না সে। আমার স্বামীকে কেন হত্যা করা হলো। ডিবি হত্যা করেছে দাবি করে তিনি বলেন, আমি এই হত্যাকাণ্ডের বিচার চাই।’

প্রত্যক্ষদর্শী ও বাসটির সহকারী বগুড়া ধুপচাচিয়া উপজেলার অর্জুনগারী এলাকার মিঠু মিয়ার ছেলে রাফি (১৯) বলেন, ‘ওই দিন রাতে কক্সবাজার থেকে ঢাকায় যাচ্ছিলাম।

এ সময় ডিবি পুলিশ পরিচয় দিয়ে কয়েকজন চালক জালাল হোসেনকে নামিয়ে নেয়। পরে তাকে মারধর ও নির্যাতন করে, এরপর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এই হত্যাকাণ্ডের বিচার চাই।’

 

রংপুরের পীরগাছায় ছাত্রলীগের নেতা ইয়াবাসহ গ্রেফতার
আরসিএন২৪বিডি সময় , ১০৩৬ ঘন্টা ২৫ এপ্রিল ২০১৯, বৃহস্পতিবার