জঙ্গি আস্তানায় ‘অপারেশন সান ডেভিল’ সমাপ্ত ঘোষাণা

জঙ্গি আস্তানায় ‘অপারেশন সান ডেভিল’ সমাপ্ত ঘোষাণা

মে ১২, ২০১৭ 0 By Editor

রাজশাহী । rcn24bd : রাজশাহীর বেনীপুরে জঙ্গি আস্তানায় ‘অপারেশন সান ডেভিল’ সমাপ্ত ঘোষাণা করা হয়েছে।

১২ মে শুক্রবার দুপুর ১ টার দিকে রাজশাহী রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি নিশারুল আরিফ সংবাদ সম্মেলনে অনুষ্ঠানিকভাবে এ অভিযানের সমাপ্ত ঘোষণা করেন।

এ সময় তিনি সাংবাদিকদের বলেন, ‘জঙ্গিদের লাশ নিতে পরিবার অস্বীকৃতি জানিয়েছে।নিহত আশরাফুল আইটি বিশেষজ্ঞ ছিল।’
তিনি জানান, ‘আশরাফুল ইসলাম বিএসসি ইঞ্জিনিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ। তিনি বড় মাপের জঙ্গি। তার গ্রামের বাড়ি চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার সদর উপজেলার দেবীগঞ্জ গ্রামে। তবে আশরাফুল কোন জঙ্গি দলের সদস্য, তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। কিছুদিন আগে ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে বিনিময় হওয়া জঙ্গি তালিকার মধ্যে আশরাফুল ইসলাম নামে একজনের নাম রয়েছে।’

এ আশরাফুল সেই আশরাফুল কি-না সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে অতিরিক্ত ডিআইজি বলেন, ‘এখনই এ ব্যাপারে বলা যাচ্ছে না। পরে সব তদন্ত করে বলা যাবে।’

সকাল থেকে দ্বিতীয় দিনের মতো অপারেশন ‘সান ডেভিল’ শুরু হয়। জঙ্গি আস্তানার ভেতর থেকে ১১টি বোমা, একটি পিস্তল, দুই রাউন্ড গুলি ও একটি ম্যাগাজিন উদ্ধার করা হয়।

বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দল একটি বোমার বিস্ফোরণ ঘটায় ও ১০টি বোমা নিষ্ক্রিয় করেন। বাড়ির ভেতরে নতুন করে আর কারো লাশ পাওয়া যায়নি।

বৃহস্পতিবার সকালে এ অভিযানে পাঁচজন নিহত হন। যারা সবাই জেএমবির সদস্য। তার আগে বাড়ি থেকে বেরিয়ে আসা জঙ্গিদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে নিহত হন আব্দুল মতিন নামে এক দমকল বিভাগের কর্মী। শুক্রবার দুপুরে জঙ্গি আস্তানার বাইরে পড়ে থাকা জঙ্গিদের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতাল পাঠানো হয়েছে।

এ ঘটনায় বাড়ির মালিক সাজ্জাদ হোসেন (৫০), তার স্ত্রী বেলী বেগম (৪৫), আল-আমিন (২০) ও মেয়ে কারিমা খাতুন (১৭) এবং আশরাফুল (২৪) নামের অপর এক জঙ্গি সদস্য নিহত হন। আর অভিযানের পর সাজ্জাদের মেয়ে সুমাইয়া পুলিশের কাছে আত্মসমর্পণ করে। সুমাইয়ার দুই শিশু সন্তানকে উদ্ধার করা হয়।