এরশাদ  জেলে  ডাক্তারের মুখও দেখি নাই – কিন্তু খালেদা জিয়া  পেয়েছেন

এরশাদ জেলে ডাক্তারের মুখও দেখি নাই – কিন্তু খালেদা জিয়া পেয়েছেন

জুন ২২, ২০১৮ 0 By আরসিএন২৪বিডি.কম

রংপুরে এইচ এম এরশাদপ্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদ শুক্রবার (২২ জুন) দুপুর ১২টার দিকে ঢাকা থেকে সৈয়দপুর হয়ে রংপুর সার্কিট হাউজে এসে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে বলেন,

‘বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া তো চিকিৎসা পাচ্ছেন, সঙ্গে কাজের মেয়ে পেয়েছেন। কিন্তু তিনি ছয় বছর কারাগারে থাকা অবস্থায় চিকিৎসা তো দূরের কথা, ডাক্তারের চেহারাও দেখি নাই।

আরোও বলেন,খালেদা জিয়া তো চেয়েছিলেন আমি কারাগারেই মারা যাই। কিন্তু মহান আল্লাহ তায়ালা আমাকে বাঁচিয়ে রেখেছেন।’

এরশাদ বলেন, ‘খালেদা জিয়ার স্বামী জিয়াউর রহমান সেনাপ্রধান ছিলেন। তার স্ত্রী হিসেবে তিনিও সিএমএইচে চিকিৎসা নিতে পারেন। আমি নিজেই সেখানে চিকিৎসা নেই।’

‘আমি ছয় বছর কারাগারে থাকা অবস্থায় চিকিৎসা পাইনি। আর উনি গোঁ ধরে বসে আছেন তার ইচ্ছে অনুযায়ী চিকিৎসা নেবেন। এটা হতে পারে না।’

মাদক নির্মূল নিয়ে বলেন,

মাদক নির্মূলে ক্রসফায়ারকে সমর্থন করে এরশাদ, ‘মাদক দমন করতে গিয়ে কিছু লোক যদি মারা যায় তা গ্রহণ করা উচিত। যদিও আমি বিনা বিচারে মৃত্যু সমর্থন করি না।

তারপরেও যারা মাদক ব্যবসা করে যুবসমাজকে ধ্বংস করছে তাদের মৃত্যুতে আমাদের কোনও শোক নেই।’

তিনি এ বিষয়ে বলেন, ‘ছোট ছোট চুনোপুঁটি মাদক ব্যবসায়ী ধরা পড়লেও গডফাদাররা এখনও ধরাছোঁয়ার বাইরে। এখন তাদের রাজপ্রাসাদ খালি, রাজা নেই।

যতদিন পর্যন্ত মাদক নির্মূল করা যাবে না ততদিন অভিযান অব্যাহত রাখা উচিত।’

সিটি করপোরেশন নির্বাচন নিয়ে বলেন এরশাদ,

আসন্ন গাজীপুর, সিলেট, বরিশাল ও রাজশাহী সিটি করপোরেশন নির্বাচন প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

এ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থীরাই জয়ী হবে বলে মন্তব্য করে তিনি বলেন, ‘তাদের অবস্থা ভালো। তাই নানাবিধ কারণে তারাই জয়ী হবে।

নির্বাচন নিরপেক্ষ হবে বলে সিইসি (প্রধান নির্বাচন কমিশনার) আবারও আশ্বস্ত করায় আমরা দেখতে চাই নির্বাচন নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন হবে।’

এর আগে, রংপুর সার্কিট হাউজে এইচ এম এরশাদ আসেন আর সে সময় জেলা ও মহানগর জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীরা তাকে ফুল দিয়ে স্বাগত জানান।

সফরসঙ্গী হিসেবে এরশাদের সঙ্গে ছিলেন জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য জিয়াউদ্দিন আহাম্মেদ বাবলু, মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার, প্রেসিডিয়াম সদস্য মেজর খালেদ আখতার,মহানগর জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক এসএম ইয়াসির, জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক ফকরুজ্জামান জাহাঙ্গীরসহ অন্যান্য নেতা।

কুড়িগ্রাম-৩ আসনের উপ-নির্বাচনে লাঙল প্রতীক পেলেন ডা. আক্কাছ আলী