জাবিতে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপে সংঘর্ষ

জাবিতে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপে সংঘর্ষ

ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০১৯ 0 By আরসিএন২৪বিডি.কম

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়: জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) পূর্বের ঘটনার জের ধরে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে।

বুধবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যার সময় বিশ্ববিদ্যালয়ের বটতলা এলাকায় দফায় দফায় ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টরসহ চারজন আহত হয়েছে।
সংঘর্ষের সময় বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টরের বুকের ইটের আঘাত লাগে। পরে তিনি বিশ্ববিদ্যালয় মেডিকেল থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা নেন।

আহতরা হয়েছেন- অর্থনীতি বিভাগের মোস্তফা, বায়োকেমিস্টি বিভাগের সাজ্জাদ বায়ো ও আইআইটি বিভাগের বাহার।

তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের মেডিকেল থেকে প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়েছেন। তবে ১০-১২ জন আহত হয়েছেন বলে জানান, বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর আ স ম ফিরোজ উল হাসান।

জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রাজিব আহমেদ রাসেল ও বর্তমান ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম আবু সুফিয়ান চঞ্চলের অনুসারীদের মধ্যে এ সংঘর্ষ হয়। সংঘর্ষ চলাকালে ৬ রাউন্ড গুলি বিনিময় হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে পাওয়া, শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি রাজিব আহমেদ রাসেল তার স্ত্রীকে নিয়ে ক্যাম্পাসে ঘুরতে আসেন।

এসময় বর্তমান সম্পাদক চঞ্চলের সঙ্গে বাকবিতন্ডা এবং হাতহাতির ঘটনা ঘটে। পরে বিষয়টি রাজিবের অনুসারীরা জানতে পেরে দেশীয় অস্ত্র নিয়ে চঞ্চলের নেতাকর্মীদের ওপর আক্রমণ করলে উভয় গ্রুপের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়।

এ বিষয়ে শাখা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রাজিব আহমেদ রাসেল বলেন, ‘চঞ্চল আমার ওপর অতর্কিতভাবে হামলা চালায়। এসময় সে আমাকে ও আমার স্ত্রীকে অপমান করে।’

বর্তমান সাধারণ সম্পাদক আবু সুফিয়ান চঞ্চল বলেন, ‘রাজিব আহমেদ রাসেলের আগেও আমার ওপর চড়াও হয়েছিল।
আমাকে লাঞ্ছিত করেছিল। আমাকে সে নানা বিষয়ে প্রেশার ক্রিয়েট করার চেষ্টা করে। আমি বারবারই এসব না করতে নিষেধ করেছি।

আর এ কারণে সে ক্যাম্পাসে আসলে আমি গিয়ে বলেছি যেন সে ক্যাম্পাস থেকে চলে যায়। কারণ পোলাপান তার ওপর ক্ষেপে আছে।

এসময় তার সহধর্মী ভিডিও করতে থাকলে বাকবিতন্ডা হয়। এরপর তার লোকজন রবীন্দ্রনাথ ও সাদ্দামের নেতৃত্বে অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে আমাদের ওপর আক্রমন চালায়।’

উক্ত বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রক্টর আ স ম ফিরোজ উল হাসান  বলেন, ‘পরিস্থিতি শান্ত করা হয়েছে। একই সঙ্গে পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে।’

৬ রাউন্ড গুলি বিনিয়ের বিষয়ে জানতে চাইলে প্রক্টর বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ের হলগুলোতে রেড দেওয়া সময়ের দাবি। আমরা রেড দেওয়ার কথা ভাবছি।’

গত ১৫ ডিসেম্বর নির্দেশ অমান্য করার অভিযোগ এনে বর্তমান সাধারণ সম্পাদক চঞ্চলকে মারধর করে সাবেক সাধারণ সম্পাদক রাজিব।

আরসিএন২৪বিডি.কম/২২১৮ ঘণ্টা, মঙ্গলবার ,ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০১৯