May 21, 2024
গাইবান্ধার দুটি নদীর পানি বিপৎসীমার উপরে

গাইবান্ধার দুটি নদীর পানি বিপৎসীমার উপরে

Read Time:2 Minute, 35 Second

গাইবান্ধার দুটি নদীর পানি বিপৎসীমার উপরে। গাইবান্ধার সবগুলো নদীতে ব্যাপক পানি বৃদ্ধি পেয়েছে।

দুটি নদীর পানি বিপৎসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। অন্যদিকে৪ উপজেলার নিচু এলাকার অন্তত ৩৫টি চর ডুবে গেছে হাঁটু ও কোমর পানিতে।

আজ সোমবার (২০ জুন) সকালে পানি উন্নয়ন বোর্ড জানায়, ব্যাপক পানি বৃদ্ধির ফলে গাইবান্ধা শহরের ঘাঘট নদীর পানি বিপৎসীমার ৩২ সেন্টিমিটার ও ব্রহ্মপুত্র’র পানি ৪ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।এতে গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জের হরিপুর, কাপাসিয়া, বেলকা, শ্রীপুর প্লাবিত হয়েছে।

গাইবান্ধা সদর উপজেলার মোল্লারচর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সাইদুজজ্জামান জানান, তিস্তা ও ব্রহ্মপুত্র নদীর পানি ব্যাপক বৃদ্ধি পাওয়ায় চরাঞ্চলের অনেক এলাকা তলিয়ে গেছে।

সদর উপজেলার কামারজানি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মতিয়ার রহমান জানান, অন্তত ৫ শতাধিক ঘরবাড়িতে পানি প্রবেশ করেছে। অনেকেই পানির কবল থেকে রক্ষা পেতে নদীর ডানতীরে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধে আশ্রয় নিয়েছে। আবার অনেকেই তাদের স্বজনদের বাড়িতে চলে গেছে।

বন্যার পানিতে গাইবান্ধার তিস্তা যমুনা ও ব্রহ্মপুত্র তীরবর্তী ফুলছড়ির কঞ্জিপাড়া, উড়িয়া, ফুলছড়ি, গজারিয়াসহ অনেক এলাকাও প্লাবিত হয়েছে।

চর নিশ্চিন্তপুরের হাবিজার মাষ্টার বলেন, তিস্তা যমুনা ও ব্রহ্মপুত্র নদীর চরাঞ্চলের বেশ কয়েকটি রাস্তা ডুবে গেছে। সে কারণে স্থানীয় লোকজন বাঁশ সংগ্রহ করে এবাড়ি ও বাড়ি যাওয়ার সংযোগ রাস্তা তৈরি করছেন।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু রায়হান জানান, আগামী কয়েকদিন পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকবে ।

আরসিএন ২৪ বিডি / ২০ জুন ২০২২

Happy
Happy
0 %
Sad
Sad
0 %
Excited
Excited
0 %
Sleepy
Sleepy
0 %
Angry
Angry
0 %
Surprise
Surprise
0 %

Average Rating

5 Star
0%
4 Star
0%
3 Star
0%
2 Star
0%
1 Star
0%

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

কুড়িগ্রাম ও লালমনিরহাটে হবে দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয় Previous post কুড়িগ্রাম ও লালমনিরহাটে হবে দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয়
রাণীশংকৈলে গলায় ফাঁস দিয়ে এক যুবকের আত্মহত্যা Next post দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে চলতি বছরে আত্মহত্যা ১১টি