April 14, 2024
তিন মাস পর পরিবর্তন হবে ডিজেল পেট্রোলের দাম

রংপুরে পেট্রোল পাম্প গুলোতে জ্বালানি সংকট

Read Time:2 Minute, 49 Second

রংপুরের বদরগঞ্জ উপজেলার প্রায় প্রতিটি পেট্রোল পাম্প গুলোতে জ্বালানি সংকট দেখা দিয়েছে।

ফিলিং স্টেশনগুলোতে পেট্রোল ও অকটেন সংকটের কারণে জ্বালানি না পেয়ে ফিরে যেতে হচ্ছে যানবাহন চালকদের। ঈদের পর থেকে এ অবস্থা বলে জানায় তেল বিক্রয়কারী পেট্রোলপাম্পগুলো। তবে কবে নাগাদ এ সমস্যা সমাধান তা নিশ্চিত করে বলতে পারেনি কেউ।

রবিবার (৮ মে) দুপুরে সরেজমিনে দেখা গেছে, মেসার্স শাহ ফিলিং স্টেশন, মিরাপাড়া রওশনারা ফিলিং স্টেশন, মধ্যপাড়া কঠিন শিলা ফিলিং স্টেশন, মধ্যপাড়া টিপলি ফিলিং স্টেশন, নাগের হাট কুতুববাবা ফিলিং স্টেশনসহ কয়েকটি পাম্পে দেখা গেছে একই অবস্থা। তেল না পেয়ে অনেকে হতাশ হয়ে ফিরে যাচ্ছেন।

এ বিষয়ে শাহ ফিলিং স্টেশনের ম্যানেজার জানান, ঈদের কয়েকদিন আগেই পেট্রোল সংকট চরমে পৌঁছেছে। মানুষকে দিতে পারছি না। ঈদের কিছু দিন আগে যা অকটেন এসেছিল, সেগুলো দিয়ে কোনো রকমে চালাতে হচ্ছে।

নাগের হাট কুতুববাবা ফিলিং স্টেশন এর ম্যানেজার মিজানুর রহমান বলেন, ঈদের পরের দিন থেকেই পেট্রোলের সংকট হয়ে পড়েছে। খোঁজখবর নিয়ে দেখা যায় কিছু কিছু পাম্পে অকটেন ও পেট্রোল শেষ হয়ে গেছে। জানতে চাইলে, তারা বলেন, ডিপুতে পেট্রোল আসতেছেনা তাই এই তেলের সংকট।

এদিকে কুতুববাবা ফিলিং স্টেশন পাম্পে সপ্তাহে প্রায় ২০ হাজার লিটার পেট্রোল ও ১০ হাজার লিটার অকটেন প্রয়োজন হয়। ‌পার্বতীপুর ও রংপুরের ডিপোতে না পেয়ে সিরাজগঞ্জের বাঘাবাড়ী ডিপো থেকে তেল নিয়ে পাম্পগুলো চালাতে হচ্ছিল। এখন বাঘাবাড়ী ডিপোতেও পেট্রোল ও অকটেন পাওয়া যাচ্ছে না। কিন্তু গত তিন মাস থেকে জ্বালানি পেট্রোল ও অকটেনের সরবরাহ কম ছিল। এক মাস ধরে অকটেনের সরবরাহ নেই। তবে পাম্পগুলোতে ডিজেল সরবরাহ রয়েছে।

আরসিএন২৪বিডি.কম /০৯০৫২০২২
জি এম এম / রাং

Happy
Happy
0 %
Sad
Sad
0 %
Excited
Excited
0 %
Sleepy
Sleepy
0 %
Angry
Angry
0 %
Surprise
Surprise
0 %

Average Rating

5 Star
0%
4 Star
0%
3 Star
0%
2 Star
0%
1 Star
0%

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আত্মহত্যা Previous post রংপুরের কাউনিয়ায় গৃহবধূর মরদেহ উদ্ধার: স্বামী গ্রেফতার
আমার বক্তব্য উসকানির পর্যায়ে পড়ে না: রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম Next post রেলমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি যাত্রী কল্যাণ সমিতির