May 21, 2024
রংপুর নগরীর সেনপাড়া থেকে ৮ বছরের মেয়ে নিঁখোঁজ

রংপুর নগরীর সেনপাড়া থেকে ৮ বছরের মেয়ে নিঁখোঁজ

Read Time:1 Minute, 2 Second

রংপুর নগরীর সেনপাড়া থেকে মিম নামে ৮ বছরের একটি মেয়ে হারিয়ে গেছে। এ বিষয়ে মেট্রোপলিটন কোতয়ালি থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে।

সাধারণ ডায়রি সূত্রে জানাগেছে,রংপুর সদর থানার বৈকন্ঠপুর এলাকার শাহজাহান মিয়ার কন্যা মিম (৮) নগরীর সেনপাড়া এলাকার মোঃ আব্দুল হাকিম আজাদের বাড়িত থাকত।

রবিবার ( ১৫ মে ) সকাল আনুমানিক সাড়ে ৮ টার দিকে কাউকে কিছু না বলে বাড়ি থেকে বের হয়ে যায়।

এর পরে তাকে অনেক খোঁজাখুঁজি করেও পাওয়া যায়নি। মেয়েটির গায়ের রং শ্যামলা উচ্চতা আনুমানিক ৩ ফুট ৩ ইঞ্চি। এবিষয়ে মোঃ আব্দুল হাকিম আজাদ জিডি করেছেন।

আরসিএন ২৪ বিডি / ১৬ মে ২০২২

  • গাইবান্ধায় খাদ্যবান্ধব কর্মসূচিতে সুবিধাভোগী এক লাখের বেশি

    গাইবান্ধায় করোনার প্রভাবে দরিদ্র কর্মহীন পরিবারদের জন্য খাদ্যবান্ধব কর্মসূচি চালু করা হয়েছে।

    এই কর্মসূচির আওতায় ১ লাখ ১৫,৮২৮ পরিবার এই কর্মসূচির সুবিধা গ্রহণ করবে।

    গতকাল রবিবার (৫ এপ্রিল) এ তথ্য নিশ্চিত করেন গাইবান্ধার জেলা প্রশাসক আব্দুল মতিন। এতে জেলার ৮১টি ইউনিয়নে মোট ১৯৪ জন ডিলারের মাধ্যমে প্রতিকেজি চাল ১০ টাকা দরে কিনবেন সুবিধাভোগীরা।

    জেলা প্রশাসক আব্দুল মতিন বলেন, প্রত্যেক পরিবার ১০ টাকা কেজিতে মাসে ৩০ কেজি চাল কিনতে পারবে।

  • জাল দলিল চক্রের মূল হোতা গ্রেফতার

    লালমনিরহাটে জাল দলিল তৈরির চক্রের মূল হোতা মোঃ মহুবর রহমানকে জাল দলিলসহ গ্রেফতার করেছে সিআইডি। আজ সোমবার সকালে সদর উপজেলার রাজপুর ইউপির মধুরাম গ্রামের নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

    গ্রেফতারকৃত মোঃ মহুবর রহমান ওই গ্রামের মোছাব্বের আলীর ছেলে। একাধিক জমির দলিল জাল করার বিষয়টি সিআইডির প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি স্বীকার করেছেন বলে জানিয়েছে সিআইডির লালমনিরহাট জেলা অফিসের সহকারী পুলিশ সুপার আব্দুল হাই সরকার।

    সিআইডি ও মামলা সূত্রে জানা যায়, মুহুবর প্রতিবেশী তোফাজ্জল হোসেনের রেকর্ডভুক্ত সাড়ে ৩ শতাংশ জমি গত বছর ২৬ নভেম্বরে অন লাইনে ১১০-৯৪ নম্বর দলিল মূলে সদর উপজেলা ভূমি অফিসে নিজের নামে খারিজের জন্য আবেদন করে। বিষয়টি জানতে পেরে তোফাজ্জল হোসেন ওই দলিলটির জাবেদা সাব-রেজিস্টার অফিস থেকে উত্তোলন করে দেখতে পান ওই দলিলটি মোঃ মহুবর রহমানের নামের দলিল নয় বরং তা মোঃ জহর উদ্দিন নামে রেজিস্ট্রি সম্পন্ন হয়েছে। একই সাথে তোফাজ্জল হোসেন দলিলের জাবেদা পর্যালোচনা করে দেখতে পান মোঃ মহুবর রহমান দলিলটির নম্বর ব্যবহার করে জাল জালিয়াতি ও প্রতারণামূলক ভাবে হুবহু আরেকটি দলিল তৈরি করে নামজারীর জন্য আবেদন করেছে।

    বিষয়টি স্পর্শকাতর হওয়ায় মোঃ তোফাজ্জল হোসেন জাল দলিল তৈরির অভিযোগে রবিবার লালমনিরহাট সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করে সিআইডির সহায়তা চান। অভিযোগ পাওয়ার পর পরই অনুসন্ধানে নামেন সিআইডির লালমনিরহাট ঊর্ধতন কর্তৃপক্ষের অনুমতি নিয়ে মাঠে নামে। এর ধারাবাহিকতায় আজ সোমবার সকালে মহুবর রহমানকে তার নিজ বাড়ি থেকে আটক করে। এই সময় মহুবরের কাছ থেকে ওই জাল দলিলটি উদ্ধার করে সিআইডি। পরে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে একাধিক জাল দলিল তৈরির বিষয়টি মহুবর স্বীকার করেন।

    এদিকে অভিযোগ উঠেছে জাল দলিলের মাধ্যমে মহুবর রহমান প্রতিবেশী মোঃ লিটন, মোঃ লাভলু মিয়া, আব্দুস সালামসহ অনেকের জমি দখল করেছে। মহুবর রহমানের দলিল জাল করার অপকর্মে কারণে অতিষ্ঠ এলাকার অনেকে।

    প্রতিবেশী মোঃ লাভলু মিয়া বলেন, আমার এবং আমার জ্যাঠাতো ভাইয়ের ৬১ শতাংশ জমি জাল দলিল দেখিয়ে নিজের নামে খারিজ করার আবেদন করেছিল। পরে এসিল্যান্ড জাল দলিলের বিষয়টি জানতে পেরে খারিজ আটকে দেয়। এরপর আবারও আমাদের আরও একটি জমি তার নামে খারিজ প্রক্রিয়ার শেষ ধাপে ধরা পড়ে যে, দলিলের নম্বর ঠিক থাকলেও দলিলটি মহুবরের না। পরে জানতে পেরে তার বিরুদ্ধে মামলা করেছি।

    আরেক প্রতিবেশী আব্দুস সালাম বলেন, আমার পৈতৃক জমি জাল দলিল দেখিয়ে দখল করেছে মহুবর। আমার ছেলে সরকারি চাকরি করে বিধায় মামলা করতে নিষেধ করেছে। সেই জমি অবৈধভাবে ভোগ করে আসছে মোঃ মহুবর রহমান। তার কারণে এলাকার অনেকে অতিষ্ঠ।

    মোঃ লিটন বলেন, মহুবর রহমানের প্রথম জালিয়াতি ধরা পড়ে খুনিয়াগাছ ইউনিয়ন ভূমি অফিসে। তার নিজস্ব ক্যাডার বাহিনী আছে যাদের সহায়তায় সে এলাকার অনেকের জমি দখল করেছে। শুধু তাই নয়, তিস্তার চরের জমিও সে বিভিন্ন ব্যক্তির জমি জাল দলিলের মাধ্যমে দখল করে। তার এসব অপকর্মে অতিষ্ঠ এলাকার সাধারণ মানুষ।

    সিআইডির লালমনিরহাট অফিসের সহকারী পুলিশ সুপার আব্দুল হাই সরকার বলেন, মোঃ মহুবর রহমান একাধিক জাল দলিলের বিষয়টি স্বীকার করেছে। তার বিরুদ্ধে জাল দলিলের আরও একটি মামলা বিচারাধীন রয়েছে। আমরা তাকে আটকের পর স্বীকারোক্তি অনুযায়ী জাল দলিলও উদ্ধার করেছি। আসামিকে এরই মধ্যেই আদালতে প্রেরণ করেছি। এর সাথে কারা জড়িত আছে তা জানতে আদালতের কাছে রিমান্ডের আবেদন করা হবে।

  • রমেক হাসপাতালে এক দালালের কারাদণ্ড

    রংপুর মেডিকেল কলেজ (রমেক) হাসপাতালে দুদক ও জেলা প্রশাসনের যৌথ অভিযান চালিয়েছে।

    আজ সোমবার দুপুরের ওই অভিযানে এক দালালকে ৩ মাসের কারাদণ্ড দেয়া হয়।

    কারাদণ্ড প্রদান করেন রংপুর জেলা প্রশাসনের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মাহমুদ হাসান মৃধা। এই সময় রংপুর দুুদকের উপ-পরিচালক মোঃ শাওন মিয়া উপস্থিত ছিলেন।

    ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা যায়, রংপুর মেডিকেল কলেজ (রমেক) হাসপাতালে কিছুদিন থেকে দালালদের দৌরাত্ম বেড়ে যাওয়ায় আজ সোমবার দুপুরে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয় দুদক ও জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে। এসময় নগরীর দর্শনা এলাকার দিপন চন্দ্র (৩০) নামে এক দালালকে আটক করা হয়। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে তাকে ৩ মাসের কারাদণ্ড ও সাথে ৫০০ টাকা জরিমানা করা হয়।

    এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন জেলা প্রশাসনের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মাহমুদ হাসান মৃধা।

  • মোটরসাইকেলের চাকায় ওড়না পেঁচিয়ে এক নারীর মৃত্যু

    রংপুর জেলার পীরগাছায় মোটরসাইকেলের চাকার সাথে ওড়না পেঁচিয়ে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। গতকাল রবিবার সকালে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তাঁর মৃত্যু হয়।

    এর আগে গত শনিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে উপজেলার তাম্বুলপুর ইউনিয়নের জলপাইতল এলাকায় এই দুর্ঘটনাটি ঘটে।

    নিহত মোছাঃ আফরোজা বেগম (৪০) উপজেলার নেকমামুদ বাজারের কসমেটিকস ব্যবসায়ী মোঃ মনোয়ার হোসেনের স্ত্রী।

    নিহতের স্বজন ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, স্বামীর সাথে মোটরসাইকেলে চেপে পার্শ্ববর্তী সুন্দরগঞ্জ উপজেলার চৈতন্য বাজারে বাবার বাড়ি যাচ্ছিল মোছাঃ আফরোজা বেগম। পথিমধ্যে তাম্বুলপুরের জলপাইতল এলাকায় নিজের পরিধেয় ওড়না চলন্ত মোটরসাইকেলের চাকার সাথে পেঁচিয়ে গেলে ছিটকে রাস্তায় পড়ে যান তিনি। এই সময় তিনি জ্ঞান হারিয়ে ফেললে তাঁকে উদ্ধার করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল রবিবার সকালে তিনি মারা যান।

    পীরগাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সুশান্ত কুমার সরকার বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থান পরিদর্শন করেছে। এই ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

  • সুন্দরগঞ্জে তিস্তায় এক কৃষক নিখোঁজ

    গাইবান্ধা জেলার সুন্দরগঞ্জে গরু নিয়ে পার হওয়ার সময় মোঃ লাল মিয়া (৪১) নামের এক কৃষক তিস্তা নদীতে নিখোঁজ হয়েছেন।

    গতকাল রবিবার বিকেলে উপজেলার কাপাসিয়া ইউনিয়নের ভাটি কাপাসিয়া গ্রামের বাদামের চর এলাকায় এই মর্মান্তিক ঘটনাটি ঘটে।

    নিখোঁজ মোঃ লাল মিয়া ওই গ্রামের মোঃ তকিজল মিয়ার ছেলে।

    উপজেলার কাপাসিয়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউনিয়ন পরিষদ) চেয়ারম্যান মোঃ মনজু মিয়া এই তথ্য জানিয়েছেন। তিনি বলেন, গতকাল রবিবার বিকেল ৪টার দিকে নিখোঁজের ঘটনাটি ঘটে।

    মোঃ লাল মিয়ার স্বজনদের বরাত দিয়ে ইউপি চেয়ারম্যান আরও বলেন, ঘটনার সময় তিনি গরু নিয়ে বাড়ি ফিরছিল। সাঁতরে পার হওয়ার সময় তিস্তা নদীতে ডুবে যান মোঃ লাল মিয়া।

Happy
Happy
0 %
Sad
Sad
0 %
Excited
Excited
0 %
Sleepy
Sleepy
0 %
Angry
Angry
0 %
Surprise
Surprise
0 %

Average Rating

5 Star
0%
4 Star
0%
3 Star
0%
2 Star
0%
1 Star
0%

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

মাহিগঞ্জ থানা আ. লীগের সভাপতি-সম্পাদক নির্বাচিত Previous post মাহিগঞ্জ থানা আ. লীগের সভাপতি-সম্পাদক নির্বাচিত
মৃত্যুদন্ড প্রাপ্ত আসামী গ্রেফতার Next post মৃত্যুদন্ড প্রাপ্ত আসামী গ্রেফতার