ঠাকুরগাঁওয়ে নার্স তানজিনা মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে অবশেষে হার মানলেন

জুন ২৭, ২০১৯ 1 By আরসিএন২৪বিডি.কম

ঠাকুরগাঁও: ঠাকুরগাঁওয়ে মেয়েদের উত্ত্যক্তকারী ও বখাটের ছুরিকাঘাতে আহত হয়ে সাতদিন মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে অবশেষে হার মানলেন নার্স তানজিনা আক্তার

বৃহস্পতিবার (২৭ জুন) সকাল ৯টার দিকে রংপুর মেডিকেল কলেজ (রমেক) হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।

নিহত তানজিনা আক্তার শহরের গ্রামীণ চক্ষু হাসপাতালের নার্স
হিসাবে কর্মরত ছিলেন। সালন্দর ইউনিয়নের মাদরাসাপাড়া গ্রামের হামিদ আলীর মেয়ে। তার মৃত্যুর খবর জানার পর পরিবারসহ তার এলাকায় নেমে এসেছে শোকের ছায়া।

২০ জুন ঠাকুরগাঁও শহরের মাদ্রাসা পাড়া এলাকায় বখাটেদের ধারালো ছুরির আঘাতে গুরুতর আহত হয় তানজিনা আক্তার। পরে তাকে উদ্ধার করে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করার পর অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় রংপুর মেডিকেলে রেফার্ড করা হয়েছিল।

সূত্র মতে , বৃহস্পতিবার (২০ জুন) সকাল ৮টার দিকে বাড়ি থেকে বের হয়ে কর্মস্থলে যাচ্ছিলেন নার্স তানজিনা। সেই সময় রাস্তায় ওঁৎ পেতে থাকা বখাটে জীবন তার গতিরোধ করে এলোপাতাড়ি ছুরিকাঘাত করে। এসময় তানজিনার চিৎকারে স্থানীয়রা ছুঁটে এসে তাকে বাঁচানোর চেষ্ঠা করেন , এসময় বখাটে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। পরে এলাকাবাসী তাকে আটক করে পুলিশে দেয়।

তানজিনার চাচাতো ভাই হুমায়ুন কবির জানান, ওইদিন আশঙ্কাজনক অবস্থায় বোনকে ঠাকুরগাঁও আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে রংপুর মেডিকেলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার মারা গেলো। তবে কী কারণে জীবন এ ঘটনা ঘটিয়েছে, তা কেউ বলতে পারছে না।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ওই বখাটে জীবন প্রায়ই মেয়েদের উত্ত্যক্ত করতো। তানজিনা এর প্রতিবাদ করার এ পরিণতি বরণ করেত হলো।

মৌলভীবাজারে সাব ইন্সপেক্টরকে সাময়িক বরখাস্ত সহ কনস্টেবল আটক

আরসিএন ২৪ বিডি সময়: ২০০১ ঘণ্টা, জুন ২৭, ২০১৯