February 23, 2024

রংপুরের কাউনিয়া উপজেলায় ছুরিকাঘাতে ১ জনের মৃত্যু

Read Time:3 Minute, 11 Second

রংপুর জেলার কাউনিয়া উপজেলায় ভাতিজার ছুরিকাঘাতে ময়নাল হক নামের একজন ব্যক্তি নিহত হয়েছেন।

শুক্রবার (১৭ মার্চ) বিকেলে শহরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ময়নাল হক মারা যান।

ময়নাল হক কাউনিয়া উপজেলার হারাগাছ পৌরসভার সারাই বাবুখা গ্ৰামের মৃত আব্দুর রহমান টাংরু শেখের পুত্র।

৯ মার্চ বকেয়া টাকা না দেওয়াকে কেন্দ্র করে ভাই ও ভাতিজার ধারালো অস্ত্রের আঘাতে আহত হন ময়নাল হক। এ ঘটনায় রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের হারাগাছ থানায় একটি মামলা হয়েছে।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও উপ-পরিদর্শক (এসআই) কমল মোহন্ত বলেন, হারাগাছ পৌরসভার বাবুখা গ্ৰামে একই এলাকায় বসবাস করেন ময়নাল হক ও তার ছোট ভাই ইউনুছ আলী। ২ ভাইয়ের সারাই বাজারে মাংস বেচা বিক্রির দোকান রয়েছে।

ছোট ভাই ইউনুছ আলী গরু জবাই করে পাইকারি মাংস বিক্রি করেন। আর তার কাছ থেকে পাইকারি মাংস নিয়ে ময়নাল দোকানে বিক্রি করে আসছিলেন। ব্যবসা চলাকালে ইউনুছ তার বড় ভাইয়ের কাছে কিছু টাকা পাওনা ছিল।

বৃহস্পতিবার সকালে বকেয়া টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে ২ ভাইয়ের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। পরে ময়নাল বাড়িতে চলে যান। এর জের ধরে ওইদিন দুপুরে ছোট ভাই ইউনুছ আলী ও তার পুত্র ইয়াসিন মিয়া। পারভেজ মিয়া একত্রিত হয়ে বাড়িতে ময়নালের ওপর হামলা চালিয়ে তাকে মারধর করেন। একপর্যায়ে ইউনুছের ছেলে ইয়াসিন ধারালো ছুরি দিয়ে ময়নালের মাথায় আঘাত করেন। এতে গুরুতর আহত অবস্থায় ময়নালকে প্রথমে হারাগাছ হাসপাতালে নেওয়া হয়।

পরে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। কিন্তু তার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় নিবিড় পর্যবেক্ষণ কেন্দ্র (আইসিইউতে) নেওয়ার প্রয়োজন হয়।

তবে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আইসিইউ বেড ফাঁকা না থাকায় ওইদিন রাতে প্রাইম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি করা হয়।

কমল মোহন্ত আরও জানান, এ ঘটনায় গত ১১ মার্চ ইউনুছের ছেলে পারভেজকে গ্রেফতার করে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। অভিযুক্ত অন্যদের গ্রেফতারে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

Happy
Happy
0 %
Sad
Sad
0 %
Excited
Excited
0 %
Sleepy
Sleepy
0 %
Angry
Angry
0 %
Surprise
Surprise
0 %
Previous post ঝিনাইদহে বিকাশ প্রতারক চক্রের একজন গ্রেপ্তার
Next post করোনায় আক্রান্তে শীর্ষে রাশিয়া, মৃত্যুতে যুক্তরাষ্ট্র